তাজা খবর:

ধর্ষণের দায়ে সাড়ে চার বছর কারাদণ্ড আলভেসের হলিউডে বারাক ওবামার মেয়ের অভিষেক বাংলাদেশ ভাষা আন্দোলনের চেতনায় এগিয়ে চলছে : প্রধানমন্ত্রী ইসরায়েলিদের ওপর হামলা চালানোর অধিকার ফিলিস্তিনিদের রয়েছে : চীন আফগানিস্তানে প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হবে ২ব্যক্তির ‘বাংলাদেশের জন্য অনুপ্রেরণা জাপানের প্রযুক্তিখাত’ জাল খতিয়ানে দলিল নিবন্ধন বন্ধে সরকার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে Friday, 23 February, 2024, at 3:20 AM

ENGLISH

সারাদেশ

পাচারচক্র হাত থেকে ৫৭ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

প্রকাশ : 27 নভেম্বর 2023, সোমবার, সময় : 22:47, পঠিত 533 বার

কক্সবাজারের টেকনাফের হাতিয়ারঘোনায় মেরিন ড্রাইভের পাশে সমুদ্র সৈকত এলাকায় অভিযান চালিয়ে পাচারের হাত থেকে ৫৭ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করে পুলিশ। গেলো শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) ৫৭ রোহিঙ্গাকে টেকনাফের হাতিয়ারঘোনায় মেরিন ড্রাইভের পাশে সমুদ্র সৈকত এলাকায় অভিযান চালিয়ে পাচারের হাত থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় চারজন পাচারকারীকেও আটক করে পুলিশ। উদ্ধার হওয়া বেশ কয়েকজন রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, চামিলা কেন্দ্রীক ট্রান্সবর্ডার অপরাধী চক্রের সাথে জড়িত অপরাধী চক্রের সদস্যরা রোহিঙ্গাদের ছামিলাতে পাঠানোর উদ্দেশ্যে কিডন্যাপ করেছিলো। তারা চামিলায় পাঠায় কারণ ভুক্তভোগী পরিবার থেকে মুক্তিপণ আদায় করতে সময় লাগে। সেখানে নিয়ে গিয়ে নির্যাতন করে ভিডিও এবং ছবি পাঠানো হয়। তারপর মুক্তিপণ দিলে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।


আরেক রোহিঙ্গা জানান, আমাদের টেকনাফের দক্ষিণ ল্যাম্বরীতে সমুদ্র সৈকত ও মেরিন ড্রাইভের কাছে কয়েকটি অস্থায়ী বাড়িতে আটকে রাখা হয়েছিলো। সেখানে আরও অনেককে বন্দী করে রাখা হয়েছে। যাদের মধ্যে বাংলাদেশিকে ও রোহিঙ্গারাও রয়েছেন। আমাদের পাশের অন্য বাড়িতে তাদের বন্দি রাখা হয়েছে। আমরা এলাকা থেকে পালানোর চেষ্টা করি কিন্তু পারিনি। কারণ আশেপাশের এলাকার সবাই অপহরণকারীর চক্র। সেখান থেকে পালাতে চাইলে মৃত্যু হতে পারে। অনেক লোকজন এলাকা পাহারা দিচ্ছে।


চামিলা হল মায়ানমারের একটি গ্রাম। যেটিকে সাধারণ রোহিঙ্গাদের ভাষায় বলা হয় মগের মুল্লুক। যার অর্থ -যেখানে কোন আইনের শাসন নেই। চামিলায় মুক্তিপণের জন্য জিম্মি করা হয় রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশীদের। তারপর নির্যাতন করে ছবি এবং ভিডিও ধারণ করে পাঠানো হয় এবং টাকার দাবি পূরণ হলে ছেড়ে দেওয়া হয়। এর আগে অপহরণের শিকার অনেক মানুষ মুক্তিপণ দিয়ে চামিলা ‘টর্চার সেল’ থেকে মুক্তি পেয়েছে। এখনও আন্তঃসীমান্ত অপরাধী চক্রের হাতে অনেক রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশিরাও বন্দি চামিলায়।
এ বিষয় নিয়ে টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওসমান গনি জানান, এই ঘটনায় ২৬ নভেম্বর এসআই সঞ্জীব কুমার বাদী হয়ে মামলা করেছেন। এই ঘটনায় কারা কারা জড়িত আছে,জড়িত যাদের নাম আসবে তাদের বিরুদ্ধে খুব শিগগিরই তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




সারাদেশ পাতার আরও খবর

  • সর্বশেষ সংবাদ

    সর্বাধিক পঠিত

    সম্পাদক ও প্রকাশক: মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন জিটু

    সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : প্ল্যানার্স টাওয়ার, ১০তলা, ১৩/এ বীর উত্তম সি আর দত্ত রোড, বাংলামটর, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
    ফোন: +৮৮-০২-৪১০৬৪১১১, ৪১০৬৪১১২, ৪১০৬৪১১৩, ৪১০৬৪১১৪, ফ্যাক্স: +৮৮-০২-৯৬১১৬০৪, হটলাইন : +৮৮-০১৯২৬৬৬৭০০১-৩
    ই-মেইল : [email protected], [email protected] , Web : http://www.banglakhabor24.com